Notice :
Welcome To Our Website... আমাদের সাইটে আপডেটের কাজ চলছে, নিয়মিত নিউজ আপডেট পেতে সাথেই থাকুন, ধন্যবাদ
News Headline :
বিএনপির সিঃ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ও কেন্দ্রীয় যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল। ছাত্রলীগ কর্তৃক সিলেট এম সি কলেজ ধর্ষণের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল । চট্টগ্রাম নগরীতে মাদক ব্যবসায়ী ইয়াবা সম্রাট মুন্নার বাহিনী কর্তৃক পুলিশ সদস্য আহত। পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ইঞ্জিনিয়ার জহিরুল ইসলাম টম। দেশবাসী কে পবিত্র ঈদ-উল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদল নেতা ডি এইচ শিশির। দেশবাসী কে পবিত্র ঈদ-উল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছে ব্যারিস্টার মীর হেলাল। সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর রুহের মাগফেরাত কামনায় নগর ছাত্রদলের দোয়া মাহফিল। মানবতার এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন নগর যুবদলের সিঃ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন। চলতি মাসে হতে পারে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটি। চুরির বিষয়ে থানায় জিডি করায় সন্ত্রাসীরা হামলা চালাল।খুনের হুমকি
যেসব রোগে আক্রান্ত উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম

যেসব রোগে আক্রান্ত উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম

উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং-উনের স্বাস্থ্যের অবনতির খবর এখন সারা বিশ্বেই আলোচনার বিষয়বস্তু। এর মধ্যেই এই নেতা কী কী রোগে আক্রান্ত সে বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে নিউইয়র্ক পোস্ট।

গতকাল শনিবার প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ার এই নেতার উচ্চতা পাঁচ ফুট ছয় ইঞ্চি। আর তার শরীরের ওজন ৩শ’ পাউন্ডের বেশি। অত্যধিক ধূমপানের অভ্যাস রয়েছে কিমের। সেইসঙ্গে পারিবারিক সূত্রে হার্টের সমস্যা, ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপও রয়েছে এই নেতার।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, দিনে অন্তত চার প্যাকেট সিগারেট লাগে ৩৬ বছর বয়সী কিম জং-উনের। এ ছাড়া অস্বাস্থ্যকর বিভিন্ন ধরনের খাবার ও ওয়াইন তার প্রিয়।

অবশ্য ছয় বছর আগে জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিল, কিম জং-উনের মদ্যপানের জন্য বছরে খরচ হয় ৩০ মিলিয়ন ডলারের বেশি। শারীরিক গঠন কিছুটা ঠিক রাখার জন্য এর আগে তিনি সার্জারি করেছেন বলেও মার্কিন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়।

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম মারা গেছেন বলে দাবি করে সংবাদ প্রকাশ করেছে হংকংয়ের রাষ্ট্র সমর্থিত টিভি চ্যানেল ‘এইচকেএসটিভি হংকং’। যদিও কিমের মৃত্যুর বিষয় নিয়ে উত্তর কোরিয়ার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

গত সোমবার গুজব ছড়িয়ে পড়ে- হার্টের জটিল অপারেশনের পর কিম জং-উনের অবস্থা গুরুতর। আর সেই দাবি করেছিল দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক সংবাদপত্র ডেইলি এনকে।

এর আগে গত ১১ এপ্রিল সর্বশেষ জনসম্মুখে এসেছেন কিম জং-উন। ওইদিন তার উপস্থিতির ভিডিও সরকারি টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে কিম জং-উন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতার আসনে বসার আগে তার বাবা কিম জং-ইল ৭০ বছর বয়সে হার্ট অ্যাটাকে মারা যান। তার আগে কিম জং উনের দাদা কিম ইল-সাং ১৯৯৪ সালে হার্ট অ্যাটাকে মারা যান।

কিম জং-ইল ধূমপায়ী ছিলেন এবং দীর্ঘ সময় ধরে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ছিলেন। বিভিন্ন ধরনের মদ সংগ্রহ করে তিনি পান করতেন। ভোজন রসিক হিসেবেও তিনি পরিচিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 SKYLINE IT